সুন্দর হাতের লেখার গুরুত্ব অনেক। হাতের লেখা সুন্দর হলে সব লেখা স্পষ্টভাবে বোঝা যায়। তাছাড়া সুন্দর হাতের লেখা দেখলে শিক্ষকরা শিক্ষার্থীদের ভালো নম্বর প্রদান করেন। বিশৃঙ্খল, অস্পষ্ট লেখা দেখলে শিক্ষকদের বিরক্তির উদ্রেক হয় এবং তারা কম নম্বর প্রদান করে।

হাতের লেখা; Source: TheSchoolRun

তাছাড়া হাতের লেখা সুন্দর হলে অন্যদের মনোযোগ আকর্ষণ করা যায় এবং অন্যের প্রশংসা পাওয়া যায়। তাই হাতের লেখা সুন্দর করার গুরুত্ব অনেক। আপনার সন্তানের হাতের লেখা যদি সুন্দর হয় তাহলে সে হাতের লেখা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবে এবং বিজয়ী হয়ে সুনাম অর্জন করতে পারবে।

তাই সন্তানের হাতের লেখা কীভাবে সুন্দর করা যায় তা নিয়ে ভাবা জরুরি। জেনে নিন যেভাবে সন্তানের হাতের লেখা সুন্দর করবেন।

সমস্যা শনাক্তকরণ

আপনার শিশু সন্তানের হাতের লেখা যদি আপনি ঠিক করতে চান তাহলে প্রথমে তার সমস্যাগুলো শনাক্ত করুন। হতে পারে আপনার সন্তানের বসার পজিশন, কলম বা পেন্সিল ধরার নিয়ম ঠিক না থাকার কারণে হাতের লেখা খারাপ হয়। তাই প্রথমে তার হাতের লেখা খারাপের কারণগুলো খুঁজে বের করুন।

পেন্সিল ধরার
সঠিক নিয়ম

হাতের লেখা সুন্দর করার পেছনে বড় ভূমিকা রাখে পেন্সিল ধরার সঠিক নিয়ম। সঠিকভাবে পেন্সিল ধরতে জানলে ধীরে ধীরে লেখা সুন্দর হয়। আপনার সন্তানকে তাই পেন্সিল ধরার সঠিক নিয়ম শেখান। পেন্সিল খুব শক্তভাবে ধরা যাবে না।

পেন্সিল ধরা; Source: TheSchoolRun

আবার খুব হালকা করেও ধরা যাবে না। মোটামুটি হালকাভাবে ধরতে হবে। খেয়াল রাখতে হাত থেকে যেন বারবার পেন্সিল পড়ে না যায়। প্রথম দিকে হয়তো আপনার সন্তানের পেন্সিল ধরতে সমস্যা হতে পারে। ধীরে ধীরে ধরার স্টাইল ঠিক হয়ে যাবে।

সন্তানের লেখা
পর্যবেক্ষণ করুন

আপনার সন্তান সঠিকভাবে পেন্সিল ধরেছে কিনা, লেখায় তার মনোযোগ আছে কিনা তা পর্যবেক্ষণ করুন। শিশুদের পড়াশুনায় মনোযোগ থাকে না। আর তাই তাদের হাতের লেখা খুব খারাপ হয়। কারণ তাদের লিখতে ইচ্ছে করে না।

বর্ণমালা ও শব্দ
অনুশীলন

আপনার সন্তানকে সঠিকভাবে বর্ণমালা শেখান। বর্ণমালা যদি সুন্দরভাবে লিখতে পারে তাহলে হাতের লেখা অনেক সুন্দর ও গোছালো হবে। প্রয়োজনে প্রথমে আপনি নিজে তাকে বর্ণমালা গুলো লিখে দিন। আপনার লেখার ওপর তাকে হাত ঘুরাতে বলুন।

অনুশীলন; Source: parenting.firstcry.com

কেজি স্কুলের বাচ্চাদের মতো ডট পদ্ধতিতে লেখা শেখাতে পারেন। আপনি ডটগুলো দিয়ে দেবেন সে তার ওপরে হাত ঘুরাবে। এভাবে লিখতে লিখতে তার মাঝে সুন্দর করে লেখার অভ্যাস তৈরি হয়ে যাবে।

সোজা করে লেখার
অনুশীলন

চর্চা থাকলে হাতের লেখা অবশ্যই সুন্দর হবে। আপনার সন্তানকে নিয়মিত হাতের লেখা চর্চা করার প্রতি আগ্রহী করে তুলুন। খেয়াল রাখুন আপনার সন্তান সোজাভাবে লিখছে কিনা। হাতের লেখা সুন্দর করার জন্য সোজা করে লেখার গুরুত্ব অনেক।

সোজা করে লেখা; Source: BBC

বর্ণ সোজা করে লেখার জন্য ডট পদ্ধতি উপযোগী এবং লাইন সোজা করে লেখার জন্য মার্জিন করে নেয়া জরুরি। লেখার শুরুতে তাকে রুল করা পেপারে লিখতে দেওয়া ভালো। বাংলা ও ইংরেজী খাতায় কীভাবে সঠিক করে ঘর মেপে লিখতে হয় তা সন্তানকে শিখিয়ে দিন।

নিয়মিত লেখা
অনুশীলন

আপনার সন্তানের হাতের লেখা যদি সুন্দর করতে চান, তাহলে তাকে নিয়মিত হাতের লেখা অনুশীলন করতে বলুন। রুল করা খাতায় নিয়মিত অনুশীলন করলে তার হাতের লেখার উন্নতি ঘটবে।

যেকোনো কাজ এলোমেলোভাবে করলে সেখান থেকে ভালো ফলাফল পাওয়া যায় না। কিন্তু নিয়মিত অনুশীলন করলে ভালো ফলাফল পাওয়া যায়। তাই সন্তানকে ধৈর্য্য সহকারে নিয়মিত অনুশীলন করতে বলুন।

স্পষ্ট অক্ষরে
লেখা

আপনার সন্তান যদি স্পষ্ট অক্ষরে লেখে তাহলে তার হাতের লেখা সুন্দর হতে বাধ্য। শিশুরা সাধারণত স্পষ্ট অক্ষরে লিখতে চায় না। তারা লিখতে গিয়ে আলসেমি করে। তাই তাদের হাতের লেখা সুন্দর হয় না। লেখা যদি সুন্দর করতে হয় তাহলে স্পষ্ট করে প্রতিটি বর্ণ লিখতে হবে। তবেই হাতের লেখা সুন্দর হবে।

সময় ব্যয় করতে
হবে

এক-দুইদিনে কখনো হাতের লেখা সুন্দর করা যায় না। হাতের লেখা সুন্দর করার জন্য অনেক সময় ব্যয় করতে হবে। প্রতিবার লেখার সময় ভীষণ মনোযোগী হতে হবে এবং সুন্দর করে লিখতে হবে। এক সপ্তাহের মধ্যে হাতের লেখা কেন সুন্দর হচ্ছে না তা নিয়ে ধৈর্যহীন হলে চলবে না।

সন্তানকে চাপ নয়

আপনি যদি সন্তানের হাতের লেখা সুন্দর ও পরিপাটি করতে চান তাহলে তাকে চাপ দেওয়া যাবে না। সন্তানকে অনুপ্রেরণা দিতে হবে। কীভাবে লেখা আরো সুন্দর করা যায় সে ব্যাপারে সহযোগিতা করতে হবে। কিন্তু চাপ প্রয়োগ করে তাকে রুদ্ধ করে দেওয়া যাবে না।

ধীরগতিতে লেখা; Source: landmarkoutreach.org

সে যদি ধীরে ধীরে লেখে তবে লিখুক। কিন্তু দ্রুত লেখার জন্য অধিক চাপ দিলে সে হাতের লেখা সুন্দর করার প্রতি অনীহা প্রকাশ করবে। লিখতে লিখতে হাতের লেখা যদি সুন্দর হয়ে যায় পরে দ্রুত লেখার অনুশীলন করা যাবে।

উপযুক্ত পরিবেশ

হাতের লেখা অনুশীলন করার সময় সন্তানকে উপযুক্ত পরিবেশ দিতে হবে। যেন সে সঠিকভাবে হাত ঘুরাতে পারে এমন প্রশস্ত জায়গা দিতে হবে। ঘিঞ্জি জায়গায় হাতের লেখার অনুশীলন করা যাবে না।

টেলিভিশনের সামনে বসে হাতের লেখা অনুশীলন করলে তাতে মনোযোগ থাকবে না। মনোযোগ থাকবে টেলিভিশন স্ক্রিনের দিকে। এমনকি শুয়ে শুয়ে লেখা যাবে না। টেবিলে বসে সুন্দর করে লিখতে হবে।

Featured Image Source: TheSchoolRun

লেখক – Rikta Richi

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here